রাজশাহীতে ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধী তরুণী অন্তঃসত্ত্বা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে ধর্ষণের শিকার বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তরুণী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে। সোমবার এমন অভিযোগে রাজশাহীর পবা থানায় মামলার পর আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান ভুক্তভোগীর পরিবার ও গ্রামবাসী।

মাস ছয়েক আগে রাজশাহীর পবা উপজেলার বাকসারা গ্রামের জিল্লুর রহমানের ছেলে নুরুজ্জামান বাড়ির পাশের বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক তরুণীকে ফুসলিয়ে বাড়ি নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। বর্তমানে ওই তরুণী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ায় বিষয়টি টের পায় তার পরিবারের সদস্যরা। পরে ধর্ষণের শিকার বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তরুণীকে জিজ্ঞাসা করলে এই ঘটনা জানায় সে। সোমবার রাতে ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে নুরুজ্জামানকে আসামি করে পবা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকার প্রতিবন্ধীর বাবার দাবি, তার প্রতিবন্ধী মেয়ের সঙ্গে যে ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটেছে তার যেন ন্যায্যবিচার পান।

এ ঘটনার উপযুক্ত বিচার দাবি করেছেন ভুক্তভোগীর পরিবার ও গ্রামবাসী। স্থানীয়রা বলছেন, একটা প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণের মত ন্যক্কারজনক অপরাধ আর হতে পারে না। অপরাধীর শুধু প্রচলিত শাস্তি নয়, যেন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয় এমন দাবি তাদের।

এদিকে মামলার পর অভিযান চালিয়ে পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তার করে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তা।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, মামলা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা অপরাধীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি। এখন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আর ভিকটিমকে তার মেডিকেল পরীক্ষার জন্য আমরা ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠিয়েছি। অন্তঃসত্ত্বা ওই প্রতিবন্ধী তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button