দুর্গাপুরের মাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সুমন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: রাজশাহীর দুর্গাপুরের মাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোল্লা হাসান ইমাম ফারুক সুমনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। একই সাথে ওই ইউনিয়ন পরিষদের আরও এক ইউপি সদস্যকেও কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

একটি হত্যা চেষ্টার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় বুধবার (৬ জানুয়ারী) দুপুরে রাজশাহীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (আমলী আদালত-৩) আদালতে হাজির হয়ে চেয়ারম্যান সুমন সহ তিন আসামীর জামিনের আবেদন জানালে আদালত একজনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করলেও চেয়ারম্যান সুমন ও ইউপি সদস্য আব্দুস সালামকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী মোর্তজা কামাল ডাবলু জানান, গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর দুর্গাপুর উপজেলার মাড়িয়া গ্রামে অন্যের জমি দখল করে টয়লেট নির্মাণ করতে চেয়েছিলেন আসামীরা। এতে বাদী ও তার লোকজন বাধা দিতে গেলে বাদীকে প্রকাশ্য দিবালোকে চেয়ারম্যান সুমনের নির্দেশে মামলার অপর আসামীরা হত্যার চেষ্টা চালান। এতে বাধা দিতে গেলে বাদী পক্ষের আরো কয়েকজন গুরুতর জখম হন। পরে পুলিশ গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠান।

এ ঘটনায় গত ২ জানুয়ারি চেয়ারম্যান সুমনকে প্রধান আসামী করে মোট ১৭ জনের নামে দুর্গাপুর থানায় মামলা দায়ের করেন বাদী আশরাফুল ইসলাম বাবু। বুধবার রাজশাহীর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এ হাজির হয়ে ওই মামলায় জামিনের আবেদন জানালে আদালতের বিজ্ঞ বিচারক রাসেল মাহমুদ দায়িত্বশীল জায়গায় থেকে বিতর্কিত কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত হওয়ায় চেয়ারম্যান সুমন ও ইউপি সদস্য আব্দুস সালামের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এছাড়া অপর এক আসামীর জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী আরও বলেন, আসামীরা এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি হওয়ায় ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে পারেন না। বিশেষ করে চেয়ারম্যান সুমনের রয়েছে বিশাল ক্যাডার বাহিনী। তার ইশারাতেই চলে যতসব অপকর্ম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button