চারঘাটে চলছে বিনা মূল্যে করোনা পরীক্ষা

আবুল কালাম আজাদ (সনি):
রাজশাহীর চারঘাটে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় সাধারণ মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। চালু করা হয়েছে বিনা মূল্যে করোনা পরীক্ষার সুবিধা। হতদরিদ্র কিংবা টাকা দেবার সামর্থ্য নেই এমন ব্যাক্তিদের বিনা মূল্যে র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স।

এদিকে উপজেলার দোকানী, ভ্যান চালক, দিনমজুরসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে করোনা পরীক্ষা করাতে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে উপজেলা প্রশাসন।

উপসর্গবিহীন এসব মানুষ শুরুতে নমুনা দিতে না চাইলেও ফ্রি পরীক্ষায় নমুনা দিয়ে কয়েক মিনিটের মধ্যেই অনেকে বিস্মিত হচ্ছেন। যেখানে উদ্বেগজনক হারে করোনা পজিটিভ ফলাফল পাওয়া গেছে। আক্রান্ত ব্যাক্তিদের অধিকাংশই ছিল উপসর্গবিহীন। যত বেশি নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা করা হবে, মানুষের মাঝে সচেতনতা তত বাড়বে। এ কারণে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে করোনাভাইরাসের নমুনা বিনা মূল্যে পরীক্ষা করতে স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।

চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (১০ জুন) স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২৬ জনের র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেষ্টে ১১ জনের করোনা শনাক্ত হয়। অন্যদিক শনিবার (১২ জুন) সকালে ২৪ জনের অ্যান্টিজেন টেষ্টে আরো ৮ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

চারঘাটের অনুপামপুর গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুল আলীম বলেন, ভ্যান চালিয়ে পরিবারের চারজনের ভরণ পোষণ করি। রোদ-গরমে কিছুটা সর্দি হয়েই থাকে। তার পরও ভয় ছিল করোনা হয়েছে কিনা। তবে ১০০ টাকা খরচ হবে ভেবে করোনা পরীক্ষা করানো হয়নি। কিন্তু বিনা মূল্যে শুনে করোনা পরীক্ষা করেছি।

চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আশিকুর রহমান বলেন, সাধারণ মানুষের কাছে এ মহামারীতে টাকা একটা বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে যারা হতদরিদ্র তারা টাকার অভাবে করোনা টেস্ট করতে পারে না। এ কারণে ফ্রি অ্যান্টিজেন টেস্ট কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। যেখানে প্রতিদিনই অ্যান্টিজেন টেস্টের সংখ্যা বাড়ছে। আমরা যত বেশি স্যাম্পল টেস্ট করব, তত বেশি ফলাফল পাব। কম পরিমাণ নমুনা টেস্ট করলে আশানুরূপ ফল পাব না। উপসর্গবিহীন অনেকেরই করোনা পজিটিভ হয়েছে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা সামিরা বলেন, ফ্রি র্যাপিড অ্যান্টিজেন টেষ্ট খুবই ভাল একটা উদ্যোগ। এতে সাধারণ মানুষের মাঝে করোনা টেষ্টের আগ্রহ বাড়বে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সপ্তাহে ৬ দিন সকল শ্রেণী পেশার মানুষের জন্য ফ্রি অ্যান্টিজেন টেস্টের ব্যবস্থা রয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button