চারঘাটে কঠোর বিধি নিষেধ বাস্তবায়নে মাঠে উপজেলা প্রশাসন, ১০ মামলা

আবুল কালাম আজাদ (সনি): রাজশাহীজুড়ে উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মহামারি করোনা সংক্রমণ। সংক্রমণ ঠেকাতে করোনার নয়া হটস্পট চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাজুড়ে চলছে বিশেষ লকডাউন। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় পাশের নওগাঁ ও নাটোরেও চলছে জোনভিত্তিক লকডাউন।

কিন্তু আম বাণিজ্যের কথা মাথায় রেখে সেই পথে হাটেনি রাজশাহীর জেলা প্রশাসন। বিকল্প হিসেবে বিকাল ৫ টার পর জনসাধারণকে ঘরে রাখতে ৬ জুন আরোপ করা হয়েছে কঠোর বিধি নিষেধ।

ঘোষণা অনুযায়ী, বিকাল ৫টা থেকে চারঘাট উপজেলাসহ রাজশাহী জেলায় সকল ধরনের দোকানপাঠ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও শপিংমল বন্ধ থাকবে। কিন্তু খোলা থাকবে ওষুধ, জরুরি প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি, চিকিৎসা সেবা এবং মৃতদেহ দাফন ও সৎকারে জড়িত প্রতিষ্ঠান।

বিকাল ৫ টার পর জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত কোনোভাবেই বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। জরুরি প্রয়োজনে চলাচলের ক্ষেত্রে নিজস্ব পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতে হবে নাগরিকদের।

সামাজিক অনুষ্ঠানসহ সব ধরনের গণজমায়েত বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে সব বিনোদনকেন্দ্র। তবে এই আদেশের বাইরে থাকছে আমসহ অন্যান্য কৃষিপণ্য বা খাদ্যপণ্য পরিবহন।

জনস্বার্থে জারি করা এই আদেশ বাস্তবায়নে চারঘাট উপজেলা প্রশাসন মাঠে রয়েছে। দিনভর দাফতরিক নানান কাজে ব্যস্ত থাকলেও বিকাল ৫ টা বাজলেই বিধি নিষেধ বাস্তবায়নে নেমে পড়ছেন চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা সামিরা ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিয়তি রানী কৈরী। 

বুধবার (৯ জুন) বিকাল ৫ টায় কঠোর বিধি নিষেধ বাস্তবায়নে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে সচেতনতা অভিযান করেছেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিয়তি রানী কৈরী।

এ সময় স্বাস্থ্য বিধি না মানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১০ মামলায় ৩ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৮ জন পথচারীকে দুইশত টাকা করে ১ হাজার ৬০০ টাকা এবং দুই দোকানিকে ১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। দুই দোকানি হলো- শ্রীকৃষ্ণ ভান্ডারকে ১ হাজার টাকা ও মা জুয়েলার্সকে ৫০০ টাকা জরিমানা।

চারঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিয়তি রানী কৈরী জানিয়েছেন, বিকাল ৫টার পর যাতে কেউ ঘরের বাইরে না থাকেন, সেই বিষয়টি নিশ্চিতে কাজ করছে চারঘাট উপজেলা প্রশাসন। জরুরি নয় এমন দোকানপাঠ খোলা থাকলে ও পথচারীরা স্বাস্থ্য বিধি না মানলে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button